বইমেলা - বাংলা রচনা : 200 শব্দ

ভূমিকা: 

বইপ্রেমী মানুষদের জন্য বইমেলা অত্যন্ত আনন্দের এক উৎসব। বইমেলায় থাকে বিভিন্ন লেখক ও প্রকাশনীর নানা ধরনের বই। সহজে এক জায়গা থেকে পছন্দের বই সংগ্রহ করার জন্য মানুষ বইমেলায় যায় । বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক জগতের অন্যতম অনুষঙ্গ হলো বইমেলা ।

বইমেলার প্রকারভেদ: 

নানা উদ্দেশ্যে বিভিন্ন ধরনের বইমেলা আয়োজিত হয়। বইমেলার একটি উদ্দেশ্য হচ্ছে প্রকাশিত বই পাঠকদের সামনে তুলে ধরা। আরেকটি লক্ষ্য হচ্ছে লেখক, প্রকাশক ও পাঠকের মধ্যে যোগাযোগ গড়ে তোলা । এটি জ্ঞান ও সৃজনশীলতা চর্চার পাশাপাশি বইয়ের বিক্রি বাড়াতে ভূমিকা রাখে। 

বিদেশে এমন কিছু বড় বইমেলা আছে যেখানে সারা বিশ্বের লেখক ও প্রকাশকরা অংশ নেন। এ ছাড়াও বিভিন্ন উৎসব বা বিশেষ দিনকে কেন্দ্র করে ছোট আকারের অনেক মেলা আয়োজিত হয় ।

আরও পড়ুন :- বিজয় দিবস - রচনা ২০০ শব্দ [ class 3, 4, 5 ]

বাংলাদেশের বইমেলা: 

বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির উন্নয়নে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান বাংলা একাডেমি ১৯৭৮ সাল থেকে বইমেলার আয়োজন করে আসছে। ১৯৮৫ সাল থেকে একাডেমি প্রাঙ্গণে আয়োজিত এ মেলার নাম 'একুশে বইমেলা'। ভাষাশহিদদের সম্মানে এ মেলা আয়োজিত হয়। এ ছাড়া সরকারি উদ্যোগে ১৯৯৫ সাল থেকে আয়োজিত হয়ে আসছে 'ঢাকা বইমেলা'। এ ছাড়া বছর জুড়ে দেশের বিভিন্ন জায়গায় বইমেলা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে ।

বইমেলার তাৎপর্য: 

বই আমাদের জ্ঞানের পিপাসা মেটায়। বই পাঠে আনন্দও পাওয়া যায়। মেলায় আমরা পছন্দ অনুযায়ী বই কিনতে পারি । এভাবে বইমেলা বই পড়ার উৎসাহ বাড়াতে সাহায্য করে। মেলায় গিয়ে আমরা অনেক লেখক ও গুণিজনের সাথে পরিচিত হতেও পারি।

উপসংহার: 

বইমেলা আমাদের জীবনে আনন্দের অন্যতম উৎস। জ্ঞান ও সৃজনশীলতার বিকাশের জন্য বইমেলা সহায়ক ভূমিকা রাখে।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url