টেলিভিশন রচনা - পঞ্চম এবং সপ্তম শ্রেণী

টেলিভিশন রচনা - পঞ্চম শ্রেণী

সূচনা: 

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি উপহার দিয়েছে অনেক কিছু। এর মধ্যে টেলিভিশন এক বিস্ময়কর আবিষ্কার, যা মানুষের জীবনধারাকে বদলে দিয়েছে। প্রযুক্তির ক্রমবিকাশের ফলে টেলিভিশন এখন মুহুর্তের মধ্যে সারা বিশ্বকে উপস্থিত করছে।

টেলিভিশন কী: 

'টেলিভিশন' শব্দটি 'টেলি' ও 'ভিশন' এ দুটো ল্যাটিন শব্দের সংযোগে তৈরি হয়েছে। 'টেলি' শব্দের অর্থ 'দূরত্ব' এবং 'ভিশন' শব্দের অর্থ 'দেখা'। সুতরাং টেলিভিশন শব্দের অর্থ দাঁড়ায় দূরদর্শন যন্ত্র ।

আবিষ্কার: 

পল নেপকো নামের একজন জার্মান বিজ্ঞানী প্রথম টেলিভিশন বিষয়ে অভিমত প্রকাশ করেন। তাঁর মতের ওপর ভিত্তি করে ১৯২৬ সালে ইংল্যান্ডের জন এল বেয়ার্ড টেলিভিশন যন্ত্র উদ্ভাবন করেন।

টেলিভিশন ও বাংলাদেশ: 

১৯৬৪ সালে বাংলাদেশে প্রথম টেলিভিশনের ব্যবহার শুরু হয়। বাংলাদেশে রঙিন টেলিভিশন সম্প্রচার শুরু হয় ১৯৮০ সালে।

আরও পড়ুন :- বইমেলা - বাংলা রচনা : 200 শব্দ

ব্যবহার: 

আমাদের দেশের টেলিভিশন চ্যানেলগুলো থেকে দেশ- বিদেশের খবর, চলচ্চিত্র, নাটক, সংগীত, খেলাধুলা ও শিক্ষামূলক অনুষ্ঠান প্রচারিত হয়ে থাকে।

উপকারিতা: 

টেলিভিশনের অনুষ্ঠানের বেশিরভাগই সাধারণত খবর ও বিনোদনমূলক। তবে শিক্ষামূলক কাজেও এর ব্যবহার হয়েছে। টেলিভিশনে দূরশিক্ষণের কাজ করা হয়ে থাকে । এভাবে প্রশিক্ষিত জনশক্তি গড়ে তোলা যায় ।

অপকারিতা: 

সবকিছুরই যেমন কিছু ভালো দিক থোকে যেতমন কিছু খারাপ দিকও থাকে। টেলিভিশনও এর ব্যতিক্রম নয়। টেলিভিশন থেকে ক্ষতিকর গামা রশ্মি নির্গত হয়। অতিরিক্ত টেলিভিশন দেখলে চোখের ক্ষতি ও অন্যান্য শারীরিক সমস্যা হয়। টেলিভিশন দেখা নেশায় পরিণত হলে শিক্ষার্থীদের পড়াশোনারও ক্ষতি হয়।

উপসংহার: 

টেলিভিশন আধুনিক জীবনের অন্যতম প্রধান অনুষঙ্গ। তথ্য সরবরাহ, বিনোদন এবং গণযোগাযোগের ক্ষেত্রে টেলিভিশনের অবদান অনস্বীকার্য ।

আরও পড়ুন :- বিজয় দিবস - রচনা ২০০ শব্দ [ class 3, 4, 5 ]

টেলিভিশন রচনা - সপ্তম শ্রেণী

উপস্থাপনা ঃ 

আধুনিক বিজ্ঞানের যুগে টেলিভিশন এক অত্যাশ্চর্য আবিষ্কার। যে যন্ত্রের মাধ্যমে মানুষ ঘরে বসে একই সাথে দূর-দূরান্তের কোনো তথ্য বা ঘটনার কথা শ্রবণ ও ছবি দর্শন করতে পারে, তারই নাম টেলিভিশন। টেলিভিশন মানব সভ্যতার ইতিহাসে বৈজ্ঞানিক সাফল্যের এক অন্যতম নিদর্শন।

টেলিভিশন ঃ 

টেলিভিশন শব্দটি এসেছে ল্যাটিন শব্দ থেকে। টেলি শব্দের অর্থ দূরত্ব এবং ভিসিও শব্দের অর্থ দেখা। অর্থাৎ যা দিয়ে দেখা যায় তাই টেলিভিশন । টেলিভিশনের সাহায্য দূরের জিনিস দেখা যায় এবং শোনাও যায় ।

টেলিভিশন আবিষ্কার ঃ 

টেলিভিশনের প্রথম পরিকল্পনা করেন জার্মান বিজ্ঞানী পলনেপকো । তিনি বলেন শব্দের মতো ছবিও বায়ু তরঙ্গের মাধ্যমে দূরে যেতে পারে। এ কল্পনার ওপর ভিত্তি করে ১৯২৫ সালে ইংল্যান্ডের জন বেয়ার্ড বিজ্ঞানী এ যন্ত্রের উদ্ভাবন করেন। এর পর ১৯৪৫ সালে এর পূর্ণতা প্রাপ্তি ঘটে ।

টেলিভিশনের গুরুত্ব ঃ 

বর্তমানে টেলিভিশনের ব্যাপক ব্যবহার স্বীকৃত। টেলিভিশনের বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে জনগণকে সচেতন করে তুলতে সক্ষম। বর্তমান বিশ্বের বিভিন্ন আবিষ্কার চন্দ্র পৃষ্ঠে অবতরণ, মহাশূন্যে পরিভ্রমণ, নভোচারীদের দুঃসাহসিক আকাশ ভ্রমণ, সমগ্র বিশ্ববাসীর সামনে টেলিভিশনের মাধ্যমে বিভিন্ন কর্মসূচী প্রামাণ্য চিত্র ও সরকারের উন্নয়নমুখী পরিকল্পনা জনসাধারণকে অবগত করানো হয় ।

আরও পড়ুন :- যানজট - বাংলা প্রবন্ধ রচনা

শিক্ষার প্রসারে টেলিভিশনের ভূমিকা ঃ 

নিরক্ষরতা দূর করতে টেলিভিশন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন । টেলিভিশনের মাধ্যমে বৃত্তিমূলক শিক্ষা, পরীক্ষার্থী ছাত্রছাত্রীদের উপদেশ, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন প্রোগ্রাম টেলিভিশনের মাধ্যমে প্রচার করে শিক্ষা বিস্তার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। নানা প্রকার ধর্মীয় অনুষ্ঠানও এ মাধ্যমটি প্রচার করে ।

টেলিভিশনের উপকারিতা ঃ 

টেলিভিশনের মাধ্যমে অতি অল্প সময়ে অধিক লোককে সহজেই শিক্ষা দেয়া যায়। এর মাধ্যমে পৃথিবীর এক প্রান্তের খবর অপর প্রান্তে সহজেই পৌঁছে যায় । ঝড়ের পূর্বাভাস, নানা প্রকার ব্যবসায়িক পণ্যের প্রচার এর মাধ্যমে হয়ে থাকে।

টেলিভিশনের অপকারিতা ঃ 

টেলিভিশন অনেক সময় ছেলেমেয়েদের লেখাপড়ায় ব্যাঘাত ঘটায়। কুরুচিপূর্ণ ছায়াছবি দেখে ওঠতি ছেলেমেয়েরা বিপথগামী হয়। অনেক সময় মিথ্যা খবর পরিবেশন করে মানুষকে হয়রানী করে টেলিভিশন ।

উপসংহার ঃ 

টেলিভিশন একটি শক্তিশালী প্রচার মাধ্যম। গ্রামবাংলার প্রত্যন্ত অঞ্চলেও আজ টেলিভিশন বিস্তৃত । অতএব দেশ গঠনে, জ্ঞানের প্রচারে, শিক্ষার উন্নয়নে টেলিভিশন বিরাট ভূমিকা রাখতে পারে। তবে একে সঠিকভাবে ব্যবহার করতে না পারলে জনগণ বিশেষত যুব সমাজের নৈতিক অধঃপতনও অনিবার্য হয়ে দেখা দিতে পারে।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url