আমার জীবনের লক্ষ্য - রচনা Class - 6, 7, 8, 9, 10- PDF [ ৩টি ]

উপস্থাপনা ঃ 

মানুষের জীবনে আশা অনেক, সময় কম। এ কম সময়ে জীবনকে সুন্দর করে সাজাতে নির্দিষ্ট একটি লক্ষ্যের প্রয়োজন । লক্ষ্য বা উদ্দেশ্য ছাড়া জীবন, হাল ছাড়া নৌকার মত। শুধু মাঝ দরিয়ায় ঘুর পাক খায়। জীবনের লক্ষ্যই হচ্ছে মানব জীবনের সাফল্যের সোপান। প্রতিটি মানুষের কর্তব্য লক্ষ্যকে সামনে রেখে, মনোবল দৃঢ় করে অগ্রসর হওয়া।

আমার জীবনের লক্ষ্য : 

যেদিন থেকে বুঝতে শিখেছি, সমাজ নিয়ে ভাবতে শিখেছি, সেদিন থেকেই আমার মনে নানা প্রকার ভাব ঘুর পাক খাচ্ছে। একবার ভাবতাম, ডাক্তার হবো, আবার ভাবতাম বড়লোক হবো। আবার ভাবতাম জজ হবো, ভাবতে ভাবতে বড় হলাম; সমাজ দেখলাম, দেখলাম বাস্তবতা। 

ডাক্তার, বড়লোক, ইঞ্জিনিয়ার এরা বড় স্বার্থপর, লোভী। এদের দ্বারা মানুষের লাভ আর কতটুকু । সমাজ যার কাছ থেকে সবচেয়ে বেশি লাভবান হয় আমার দৃষ্টি পড়ল সেদিকে।

লক্ষ্য স্থিরের কারণ ঃ 

মহামানব হযরত মুহাম্মদ (সঃ)-এর উপর আল্লাহর প্রথম বাণী হল-

“পড়ুন, আপনার প্রতিপালকের নামে, যিনি আপনাকে সৃষ্টি করেছেন।”

মানবতার মহান শিক্ষক হযরত মুহাম্মদ (সঃ) এরশাদ করেছেন-

“বিদ্যা অর্জন করা প্রত্যেক নর-নারীর উপর অবশ্য কর্তব্য।”

কুরআন-সুন্নাহর এই দৃপ্ত ঘোষণা অনুধাবন করে আমি বুঝতে পারলাম, মানুষ হতে হলে সর্বপ্রথম জ্ঞান অর্জন করতে হবে। আর জ্ঞান অর্জনের সর্বশ্রেষ্ঠ সহায়ক শক্তি হলো একজন আদর্শ শিক্ষক । একজন আদর্শ শিক্ষকই পারে মানুষের মাঝে শিক্ষার প্রকৃত আলো জ্বালাতে । তাই আমি একজন আদর্শ শিক্ষক হয়ে এ মহান ব্রত পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

আরও পড়ুন :- ছাত্র জীবন - বাংলা রচনা [ Class - 6, 7, 8 ,9 ,10] 

লক্ষ্য অর্জনের অন্তরায় : 

জীবন কুসুমাস্তীর্ণ নয়, কণ্টকাকীর্ণ। জীবন পথের নানা বাধা-বিপত্তির প্রাচীর ডিঙ্গিয়ে আমাকে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছতে হবে। বর্তমান সমাজের বহু লোভনীয়, আকর্ষণীয় পেশা বাদ দিয়ে এ পেশা বেছে নেয়ার জন্য আমার চারদিকে নানা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হবে। 

আমি জানি এ পেশায় অর্থ নেই, ঐশ্বর্য নেই, সমৃদ্ধি নেই। তবুও আমি এ পেশাকেই বেছে নিয়েছি। সমাজ জীবনের যাবতীয় অর্থের মোহ, লোভ-লালসা ত্যাগ করেই আমি এ পেশা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

লক্ষ্য অর্জনের সাফল্য :

রাসূল (সঃ) এরশাদ করেছেন- “যে ব্যক্তি কুরআন শিক্ষা গ্রহণ করে এবং অন্যকে শিক্ষাদান করে সেই সবচেয়ে উত্তম।” রাসূল (সঃ)-এর এই মহানবাণীতে উদ্বুদ্ধ হয়ে আমি কুরআনের আলোয় আলোকিত জ্ঞান দানের শিক্ষক হিসেবে দেশের সর্বত্র ইলমে দ্বীন প্রতিষ্ঠান সংগ্রাম করে যাবো । 

আমার শিক্ষা গ্রহণ করেই একদিন এদেশের বুকে হাজার হাজার যোগ্য উত্তরসুরী বেরিয়ে আসবে, যারা এদেশের বুকে ইসলামী হুকুমত প্রতিষ্ঠার সংগ্রাম করবে, হেরার রাজতোরণে পৌছে দেবে দেশ ও জাতিকে। সে দিনই আমার জীবন ধন্য হবে, আমার স্বপ্ন সার্থক হবে।

উপসংহার : 

উচ্চাশা ত্যাগ করে শিক্ষকতা এটাই আমার জীবনের সোনালী লক্ষ্য। আমি যে মহান শিক্ষকদের সান্নিধ্যে থেকে আমার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছি তাদের দোয়া, অনুপ্রেরণা এবং সর্বোপরি মহান আল্লাহর রহমত আমাকে আমার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে দেবে ইনশাআল্লাহ ।







এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url