স্বদেশ প্রেম - বাংলা রচনা [ Class - 6, 7, 8 ,9 ,10] hsc

উপস্থাপনা ঃ 

মাতৃভূমির প্রতি ভালবাসার চেতনাই হলো স্বদেশপ্রেম বা দেশপ্রেম। দেশপ্রেম মানুষের অন্যতম প্রধান সদগুণ। দেশপ্রেম ব্যতীত সুনাগরিক তথা সুন্দর মানুষ হওয়া যায় না। তাই মানুষকে অনেক ক্ষেত্রেই স্বদেশপ্রেমের মানদণ্ডে বিচার করা হয়। 

কবির উচ্চারণ :

সার্থক জনম আমার জন্মেছি এই দেশে,

সার্থক জনম মা গো তোমায় ভালবেসে।'

দেশপ্রেমের স্বরূপ ঃ 

স্বদেশপ্রেম বা দেশের প্রতি ভালবাসা মানুষের একটি স্বাভাবিক প্রবৃত্তি। গর্ভধারণী জননীকে সন্তান যেমন ভালবাসে, তেমনি দেশ-মাতৃভাষাকেও মানুষ জন্মলগ্ন থেকেই শ্রদ্ধা করতে এবং ভালবাসতে শেখে। দেশ যতো ক্ষুদ্র বা যতো দরিদ্রই হোক না কেন, প্রতিটি দেশপ্রেমিক মানুষের কাছে তার জন্মভূমি, তার দেশ সবার সেরা। “এমন দেশটি কোথাও খুঁজে পাবে নাকো তুমি, সকল দেশের রাণী সে যে আমার জন্মভূমি।”

স্বদেশ প্রেমিকের আদর্শ ঃ 

দেশপ্রেমিকের আদর্শ আমাদের ত্যাগের মহিমা শিক্ষা দেয়। ইসলাম ধর্মের প্রবর্তক হযরত মুহাম্মদ (সঃ) একজন প্রকৃত দেশপ্রেমিক ছিলেন। তিনি দেশবাসীকে সমস্ত অন্ধকার থেকে আলোতে নিয়ে এসেছিলেন। জীবন, সম্পদ, শক্তি, ভালবাসা সবকিছুই দেশের জন্য উৎসর্গ করেছিলেন।

আরও পড়ুন :- রচনা : জাতীয় জীবনে দেশপ্রেমের গুরুত্ব

স্বদেশ প্রেমের দৃষ্টান্ত ঃ 

বিশ্বের ইতিহাসে স্বদেশ প্রেমের লক্ষ কোটি দৃষ্টান্ত রয়েছে। ভারত উপমহাদেশের ইতিহাসে শেরে বাংলা এ. কে. ফজলুল হক, মাওলানা ভাসানী, সোহরাওয়ার্দী, মহাত্মা গান্ধি, তিতুমীর প্রমুখের নাম স্বর্ণাক্ষরে মুদ্রিত । বাঙালি জাতি মুক্তিযুদ্ধসহ বিভিন্ন সংগ্রামের মাধ্যমে স্বদেশ প্রেমের যে পরিচয় দিয়েছে তা বিশ্ববাসীর কারো অজানা নয় ।

ধর্মে দেশপ্রেমের তাগিদ ঃ 

পবিত্র ইসলাম ধর্মে বলা হয়েছে, “হুব্বুল ওয়াত্বানি মিনাল ঈমান” অর্থাৎ ‘দেশপ্রেম ঈমানের অঙ্গ। পৃথিবীতে এমন কোনো ধর্ম নেই, যে ধর্মে দেশকে ভালবাসার নির্দেশ নেই । আমরা মহানবী (সঃ)-কে মদিনায় হিজরতকালে মাতৃভূমির জন্য অশ্রু বিসর্জন করতে দেখি। মানুষ জীবনে যে কোনো সময়ে যে কোনো স্থান থেকে দেশকে ভালবাসতে পারে। কৃষক কৃষি উৎপাদন বাড়িয়ে, সাহিত্যিক তার সাহিত্য সাধনার মাধ্যমে দেশের প্রতি ভালবাসা প্রকাশ করতে পারে ।

উপসংহার ঃ 

দেশপ্রেম মানবজীবনের একটি শ্রেষ্ঠ গুণ ও অমূল্য সম্পদ। একটি মহৎ গুণ হিসেবে প্রত্যেক মানুষের মধ্যেই দেশপ্রেম থাকা উচিত। দেশপ্রেমের মূল লক্ষ্য মানুষকে ভালবাসা। দেশপ্রেম বিশ্বপ্রেমেরই আংশিক রূপ। দেশ ও জাতির স্বার্থে ও কল্যাণে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশ ও জাতির জন্য কিছু না কিছু অবদান রাখা প্রতিটি দেশপ্রেমিক নাগরিকের দায়িত্ব ও কর্তব্য 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url