ভাব সম্প্রসারণ : আলো বলে অন্ধকার তুই বড় কালো

মূলভাব : ছোট-বড় সবাইকে যথাযথ মূল্যায়নের মাধ্যমেই নিজেদের মর্যাদা সংরক্ষণ করা যায় ।

সম্প্রসারিত ভাব : আমাদের দৈনন্দিন জীবনে দেখতে পাই যে, একে অন্যকে অবজ্ঞা করা কিংবা হেয় প্রতিপন্ন করার জন্যে তৎপর থাকে । এতে করে তাদের মর্যাদা তো বাড়েই না বরং নিজেরাও বহুলাংশে সমালোচিত হয় । কিন্তু অপরকে যদি তার প্রাপ্য সম্মান, মর্যাদা এবং শ্রদ্ধা দেয়া হয় তবে নিজেকেই সুবিবেচক হিসেবে তুলে ধরা যায়। এতে করে সামাজিক স্থিতিশীলতা বজায় থাকার পাশাপাশি পারস্পরিক সম্প্রীতি গড়ে ওঠে এবং সমাজ হয় শান্তিময় । 

বড় দম্ভ করে আলো অন্ধকারকে সর্বদা তার কুৎসিত মূর্তির কথা স্মরণ করিয়ে দেয় । এতে করে অন্ধকার নিজেকে গর্বিত মনে করে । বড় বিনয়ের সাথে সে আলোকে স্মরণ করিয়ে দেয়-যদি তার অস্তিত্ব এ পৃথিবীতে না থাকত তবে আলো তার নিজস্ব উজ্জ্বলতাকে কখনই প্রকাশ করার সুযোগ পেত না । আমাদের মানব সমাজেও এরকম অভিযোগ শোনা যায় । এ সমাজে নীচু বংশের কিংবা অসৎ চরিত্রের মানুষ যদি না থাকত তবে ভালো মানুষেরা তাদের পূত-পবিত্র মূর্তিকে উপস্থাপনের সুযোগ পেত না ।

মন্তব্য : বিশ্বের প্রতিটি জিনিসই জোড়ায় জোড়ায় ওতপ্রোতভাবে জড়িত। একটি ছাড়া অন্যটির অস্তিত্ব কল্পনা করা যায় না। তাই পরস্পর দ্বন্দ্ব-বিদ্বেষ পরিহার করা উচিত।

আরও পড়ুন :-  ভাব সম্প্রসারণ : এ জগতে হায় সেই বেশি চায় আছে যার ভুরি ভুরি

এই ভাব সম্প্রসারণ এর অন্য আর একটি প্রতিলিপন 

মূলভাব : অন্ধকার আছে বলেই আলো এত মূল্যবান। দুঃখ আছে বলেই সুখ এত মহীয়ান।

সম্প্রসারিত ভাব : বৈচিত্র্য সৌন্দর্যের প্রসূতি। বিধাতার সৃষ্টিতে বৈচিত্র্য আছে বলেই প্রকৃতির সৌন্দর্য মানুষের অনুভূতিকে নাড়া দেয়। মানুষ বিস্ময়পুলকে স্বতঃস্ফূর্তভাবে বলে ওঠে, ‘বা কি সুন্দর!’

সরোবরের নিস্তরঙ্গ কালো জলের পটভূমিতে অপরূপ সৌন্দর্যের পশরা সাজিয়ে যখন কমল বিকশিত হয়ে ওঠে, আমরা তখন মুগ্ধ হই। কিন্তু পঙ্কজের এ সৌন্দর্যকে ফুটিয়ে তোলার জন্য বিশ্বশিল্পী তার মৃণালে কণ্টক সৃষ্টি করেছে। কণ্টক আছে বলেই সম্ভবত কমল এত সুন্দর ও মনোহারী। সুন্দরী নারীর কপালে কালো তিল তার স্বাভাবিক সৌন্দর্যকে শতগুণ বর্ধিত করে, তাকে রূপের রাণীতে পরিণত করে।

আমাদের জীবনে বিরহ আছে বলেই মিলন এতো মধুর; দুঃখ আছে বলেই সুখ আমাদের বেশি কাম্য; অন্ধকার আছে বলেই আলো এতো আকাঙ্ক্ষিত। দুনিয়াতে যদি অভাব না থাকত তবে জগতের নিত্য আবিষ্কার সম্ভব হত না। স্তব্ধ হয়ে পড়ত প্রগতির দুর্বার গতি। জগতের বিচিত্রদর্শী জিনিসের মধ্যে তুলনা করার সুযোগ আছে বলেই আমাদের মানসিক জগতে বিপ্লবাত্মক পরিবর্তন সূচিত হয়, সুখ-দুঃখ, আশা-আনন্দের অনুভূতিতে আমরা অবিরাম আন্দোলিত হই। জীবন ও জগতের এ বৈচিত্র্যই মানুষের চোখে মায়ার অঞ্জন 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url