ঈদ উৎসব - বাংলা রচনা | ক্লাস 6, 7, 8, 9, 10

উপস্থাপনা ঃ 

পৃথিবীর প্রতিটি জাতির ধর্মীয় উৎসব আছে। প্রতিটি জাতিই তাদের ধর্মীয় উৎসবগুলো বিশেষ গুরুত্বের সাথে পালন করে থাকে । ঈদ-উৎসব মুসলমানদের বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ উৎসব। প্রতিটি ঈদ মুসলমানদের ঘরে খুশির জোয়ার বইয়ে দেয়। ধনী- গরীব নির্বিশেষে পৃথিবীর সকল মুসলমান সর্বত্র দু'টি উৎসব অনাবিল আনন্দের সাথে পালন করে থাকে ।

ঈদ-উল-ফিতর ঃ 

“ঈদের আনন্দে মন নেচে ওঠে, পথে পথে আজ থাকির বন্ধু, ঈদ মোবারক, আসসালাম” । একমাস পবিত্র রমযানের রোযার পর শাওয়াল এর চাঁদের প্রথম তারিখে মুসলমানগণ যে উৎসব পালন করে তাকে ঈদ-উল-ফিতর বলে। বিশ্ব মুসলিমের সুদীর্ঘ একমাস ধরে সংযম ও শুচিতার সাধনায় উত্তীর্ণ হওয়ার আনন্দ ঈদ-উল-ফিতর ।

ঈদ-উল-আযহা : 

ঈদ-উল-আযহার সাথে জড়িত আছে ইসলামের প্রাচীন ইতিহাস। আল্লাহ হযরত ইব্রাহীম (আঃ)-এর আনুগত্য পরীক্ষার উদ্দেশ্যে তাঁকে তাঁর প্রিয় বস্তু ত্যাগ করার আহবান জানিয়েছিলেন । হযরত ইব্রাহীন (আঃ) আল্লাহর আনুগত্যের পরীক্ষা দিতে গিয়ে তিনি তাঁর প্রিয় পুত্র ইসমাঈলকে কুরবানী দিতে প্রবৃত্ত হন । 

আল্লাহ তাঁর আত্মত্যাগ ও আনুগত্যের প্রমাণ পেয়ে নবীর সন্তানকে রক্ষা করলেন । তাঁরই স্মরণে প্রতিবছর মুসলিম বিশ্বে পশু কুরবানীর মাধ্যমে ঈদ-উল-আযহা পালন করা হয় ৷

আরও পড়ুন :- বাংলা রচনা : ঈদে মিলাদুন্নবী ক্লাস ৬, ৭, ৮, ৯, ১০  

ঈদের তাৎপর্য ঃ

ঈদের মাধ্যমে শান্তি, মিলনের বাণী প্রচারিত হয়। ঈদের মাধ্যমে ধনী-দরিদ্রের মধ্যে একটি সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে। ঈদের দিন সমগ্র বিশ্ব মুসলিম ভ্রাতৃত্ব বন্ধনে আবদ্ধ হয় । ঈদের চাঁদ আকাশে দেখার সাথে সাথে সমগ্র মুসলিম বিশ্বে আনন্দের বন্যা বয়ে যায়। ছোট ছোট ছেলে মেয়েরা আনন্দে কোলাহল করতে থাকে । সাধ্যমত সবাই নতুন জামা কাপড় পরে । একে অপরকে মিষ্টিমুখ করিয়ে ছোট-বড় ভেদাভেদ দূর করে ।

ঈদের মূল লক্ষ্য ঃ 

ঈদ-উৎসব কেবল উত্তম পোশাকে দেহে আবৃত করে শুধু উন্নত খাদ্য গ্রহণের উৎসব নয় । এটা আত্মপোলব্ধির দিন । ঈদ-উল-আযহাও কেবল প্রাণী হত্যার উৎসব নয়, ত্যাগ ও আত্মসমর্পণের ব্রতকেই আমাদের চিত্তে পুনর্বার জাগরুক করে। তাই কবি বলেছেন- ওরে হত্যা নয় আজ সত্যাগ্রহ শক্তির উদ্বোধন ৷

উপসংহার ঃ 

ঈদ মুসলমানদের জন্য এক মহা আনন্দের দিন। প্রতি বছরে ঈদ আসে দু'বার, সমগ্র মুসলিম বিশ্বে মিলনের বার্তা নিয়ে । ঈদের দিন যদিও ধনী-গরীব ভেদাভেদ ভুলে যায় । আমাদের সামনের শ্লোগান হউক, ঈদের দিনের ভ্রাতৃত্ব বন্ধন অটুট রাখবো ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url