মায়ের অসুস্থতার কথা জানিয়ে বাবাকে পত্র [ খাম আঁকা সহ ২টি ]

'আল্লাহ ভরসা'

আমলাপাড়া, কুষ্টিয়া 
১০ই জানুয়ারি ২০২৪

শ্রদ্ধেয় আব্বা,

আমার সালাম গ্রহণ করবেন। আশা করি ভালোভাবেই আপনি পৌঁছেছেন । কিন্তু আপনাকে একটি সংবাদ দিতেই হচ্ছে। আপনি বাড়ি থেকে যাওয়ার কয়েকদিন পরেই আম্মা ভীষণভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েন। গত ৫ জানুয়ারি  ঘরের মধ্যে তিনি হঠাৎ মাথা ঘুরে পড়ে যান। আমি দেরি না করে সঙ্গে সঙ্গে ডাক্তার বৃন্দাবন বিশ্বাসকে বাড়িতে ডেকে আনি।

তিনি এসে একটি ইনজেকশন দিলে আম্মার জ্ঞান ফিরে আসে । কিন্তু দুর্বলতা এখনো কাটেনি, প্রায়ই জ্বর আসে। ডাক্তার কাকু একদিন এসে পরীক্ষা করে ব্যবস্থাপত্র দিয়ে যান । বর্তমানে সে অনুযায়ী ওষুধ চলছে ।

এমতাবস্থায় আমি কী করব ভেবে পাচ্ছি না। আপনি একবার এলে ভালো হয়। এদিকে আমি স্কুলেও যেতে পারছি না। পড়ালেখারও যথেষ্ট ক্ষতি হচ্ছে। রুমি ও আমি ভালো আছি ।

ইতি
আপনার স্নেহের
নীরব

প্রেরক
নাম - নীরব
গ্রাম - আমলাপাড়া
ডাক ঘর- কাশীপুর
জেলা - কুষ্টিয়া।
ডাকটিকেট
 প্রাপক 
 নাম - রফিজ উদ্দিন
 গ্রাম - চান্দশী
 ডাক ঘর- নগর
 জেলা - কুমিল্লা

 এই পত্রের অন্য আরেকটি প্রতিলিপন

'আল্লাহ ভরসা'

লাঙ্গলবাঁধ, মাগুরা 
১০ই জানুয়ারি ২০২৪

শ্রদ্ধের আব্বাজান, 
আসসালামু আলাইকুম । আপনি গত সপ্তাহে বাড়ি থেকে ঢাকা যাওয়ার তিন দিন পরই আম্মু হঠাৎ করে ভীষণ জ্বরে আক্রান্ত হয়ে পড়েন। তারপর ডাক্তার দেখিয়ে ওষুধ খাইয়েছি; কিন্তু জ্বর কমছে না। এমনকি জ্বরের মাত্রা ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে। মাত্রাতিরিক্ত জ্বরের জন্য গত রাত থেকে আম্মু শুধু প্রলাপ বকছেন । জ্বরের ফলে খাওয়া -দাওয়াও একেবারে বন্ধ হয়ে গেছে। 

এজন্য আমার স্নেহময়ী আম্মু দিন দিন শুকিয়ে যাচ্ছে । আম্মুর এ অবস্থায় আমরা এখন কী করব ভেবে পাচ্ছি না। এ অবস্থায় আপনার বাড়িতে থাকা খুবই দরকার। তাই আশা করি চিঠি পাওয়া মাত্র বিলম্ব না করে আপনি বাড়িতে চলে আসবেন। আপনার আগমনের প্রতীক্ষায় পথ চেয়ে রইলাম ।
ইতি
আপনার স্নেহের
নূর মোহাম্মদ



প্রেরক
নাম - নূর মোহাম্মদ
গ্রাম - লাঙ্গলবাঁধ,
ডাক ঘর- কাশীপুর
জেলা - মাগুরা।
ডাকটিকেট
 প্রাপক 
নাম - মোঃ আমিন
৫, গোড়ান
ঢাকা

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url