আমাদের বিদ্যালয় - রচনা : ( ২য়, ৩য়, ৪র্থ ও ৫ম শ্রেণি )

আমাদের বিদ্যালয় রচনা - ১

ভূমিকা :- 

আমাদের বিদ্যালয়ের নাম শ্যামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। শ্যামপুর থানা শহর থেকে সামান্য পূর্বে এটি অবস্থিত।

অবস্থান :- 

বিদ্যালয়ের ভবনটি একটি দোতলা দালান। বিদ্যালয় গৃহের দক্ষিণে বড় একটা মাঠ আছে। পূর্ব দিকে আছে একটি বড় পুকুর। উত্তর ও পশ্চিম দিকে আছে যথাক্রমে একটি বাগান ও বড় পাকা রাস্তা। বিদ্যালয় গৃহটি দক্ষিণমুখী ।

বর্ণনা :- 

বিদ্যালয় গৃহটিতে মোট ছয়টি কক্ষ আছে। শিক্ষকদের বসার জন্য একটি কক্ষ। শ্রেণীগুলোতে পর্যাপ্ত সংখ্যক দরজা, জানালা, চেয়ার, টেবিল এবং বেঞ্চ আছে। আমাদের শিক্ষকগণ আমাদের খুব স্নেহ করেন। আমরা শিক্ষকগণের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করি।

আমাদের বিদ্যালয় সকাল ১০ টায় আরম্ভ হয় ও বেলা ৪ টায় ছুটি হয়। ছেলেমেয়েরা অধ্যবসায়ী এবং মনোযোগের সাথে লেখাপড়া করে। প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষায় প্রতি বছর এখান থেকে অনেকেই বৃত্তি পেয়ে আসছে।

আরও পড়ুন :-  রচনা : ছাত্র জীবন - Class 3, 4, 5

খেলাধুলা :- 

খেলাধুলা, বিতর্ক, রচনা প্রতিযোগিতা প্রতিটি বিষয়ে এই বিদ্যালয়ে ছাত্রছাত্রীদের কৃতিত্ব প্রায় অবিসংবাদিত। ক্রীড়া শিক্ষকের তত্ত্বাবধানে আমাদের একটি ফুটবল দল রয়েছে। বিদ্যালয়ে একটি পাঠাগার আছে।

উপসংহার :- 

বাংলাদেশের অনেক বিদ্যালয়ের মতো আমাদের বিদ্যালয়েও অনেক সমস্যা আছে। এসবের মধ্যে অর্থনৈতিক সমস্যাই মূল সমস্যা। বিভিন্ন সমস্যা থাকা সত্ত্বেও আমরা আমাদের বিদ্যালয়ের জন্য গর্বিত।

আমাদের বিদ্যালয় রচনা - ২

সূচনা: 

আমাদের বিদ্যালয়ের নাম 'মুকুল বিদ্যানিকেতন'। আমি শিশু শ্রেণি থেকে এই বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছি। এটি এলাকার মধ্যে একটি আদর্শ ও বিখ্যাত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ।

অবস্থান: 

'মুকুল বিদ্যানিকেতন' আমাদের গ্রামের মাঝামাঝি অবস্থিত। অনেক পুরোনো একসারি তালগাছের পাশে আমাদের বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ। আশেপাশের কয়েকটি গ্রামের ছেলেমেয়ে এখানে পড়াশোনা করে।

বিদ্যালয় ভবনের বর্ণনা: 

আমাদের বিদ্যালয়টি দেখতে খুব সুন্দর। এটি একটি সাদা রঙের দোতলা ভবন। নিচতলায় রয়েছে শিক্ষকদের কক্ষ, অফিস কক্ষ, বিজ্ঞানাগার ও পাঠাগার। দোতলার পুরোটাতেই শ্রেণিকক্ষ। বিদ্যালয়ের সামনে একটি বড় খেলার মাঠ এবং দুদিকে দুটো ছোট বাগান আছে। ছুটির পর ফুটবল, ক্রিকেটসহ বিভিন্ন খেলায় মেতে উঠি আমরা।

আরও পড়ুন :- আমাদের গ্রাম - রচনা [  ক্লাস 2, 3, 4, 5 ] - ২টি 

পাঠদান পদ্ধতি ও সাফল্য: 

আমাদের বিদ্যালয়ে শিশু শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ানো হয়। প্রতিদিন সকাল আটটা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত শিশুদের কোলাহলে মুখর হয়ে থাকে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ। প্রায় ৩০০ শিক্ষার্থী ও ১০ জন শিক্ষক আছেন এ বিদ্যালয়ে । শিক্ষকেরা আমাদের খুবই যত্ন নিয়ে পড়ান। তারা আমাদের খুব ভালোবাসেন । এ বিদ্যালয়টির বয়স প্রায় ১০০ বছর। অনেক শিক্ষার্থী এখানে পড়াশোনা করে জীবনে সফল হয়েছেন।

খেলাধুলা ও বিনোদন: 

আমাদের বিদ্যালয়ে প্রতিবছর বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ ছাড়া ফুটবল, ক্রিকেট, ক্যারম, দাবাসহ নানা ধরনের খেলার ব্যবস্থা আছে । প্রায় প্রতিবছরই ছাত্রছাত্রীদের শিক্ষাসফরে নিয়ে যাওয়া হয় । 

উপসংহার: 

বিদ্যালয় আমাদের উপযুক্ত মানুষ হিসেবে গড়ে তুলছে। আমাদেরও উচিত বিদ্যালয়ের সুনাম রক্ষার জন্য কাজ করা। আমরা শৃঙ্খলা মেনে চলব, ভালোভাবে পড়াশোনা করব এবং বিদ্যালয় ভবন ও প্রাঙ্গণ পরিচ্ছন্ন রাখব।

আরও পড়ুন :- আমার জীবনের লক্ষ্য - রচনা [ class 2, 3, 4, 5 ]

আমাদের বিদ্যালয় রচনা - 

সূচনা : 

আমাদের স্কুলের নাম শেখপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এ স্কুলটি ঝিনাইদহ শহরে অবস্থিত। এর উত্তর দিকে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় অবস্থিত এবং পশ্চিম দিকে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহের চলাচলের জন্য বিশ্বরোড অবস্থিত।

বর্ণনা : 

একটি সুবৃহৎ দালানে আমাদের ক্লাস বসে থাকে । প্রধান শিক্ষকের ঘর, অফিস ঘর, লাইব্রেরি, বিজ্ঞানাগার এবং শিক্ষকদের বিশ্রাম ঘর সব আছে। আমাদের স্কুলে শিশু শ্রেণি হতে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত শ্রেণি আছে। প্রত্যেক । শ্রেণিতে আবার দুটি করে শাখা আছে ।

আমাদের স্কুলে ছয়শ এর অধিক ছাত্র আছে। আমাদের স্কুলে বারোজন শিক্ষক আছেন। তাঁরা সকলেই সুশিক্ষিত ও স্নেহপরায়ণ। তাঁরা ছাত্রদেরকে খুব ভালোবাসেন এবং যত্নের সাথে শিক্ষা দিয়ে থাকেন।

আরও পড়ুন :- বনভোজন - বাংলা রচনা [ class 3, 4, 5 ]

আমাদের স্কুলে একটি লাইব্রেরি আছে, এ লাইব্রেরিতে বিভিন্ন প্রকার পুস্তক আছে এবং এখানে কয়েকটি দৈনিক ও মাসিক পত্রিকা রাখা হয়। আমরা প্রতি সপ্তাহে লাইব্রেরি থেকে গল্পের বই নিয়ে থাকি। আমাদের স্কুলে একটি খেলার মাঠ আছে। মাঠটিতে ছুটির পর ফুটবল, হকি, ক্রিকেট প্রভৃতি খেলা হয় ৷

পরীক্ষায় সাফল্য : 

আমাদের স্কুল হতে প্রতিবছর বৃত্তি পরীক্ষার জন্য ছাত্র পাঠানো হয় এবং তাদের অধিকাংশই ভালোভাবে পাস করে থাকে। বিগত কয়েক বছর ধরে আমাদের স্কুল থেকে ২/৩ জন করে বৃত্তি পেয়ে আসছে। এটা আমাদের স্কুলের পক্ষে অত্যন্ত কৃতিত্বের বিষয়।

উপসংহার : 

আমাদের স্কুলটি উপযুক্ত কমিটির তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হচ্ছে। সব দিক দিয়ে বিচার করলে একে একটি আদর্শ বিদ্যালয় বলা চলে। তাই আমরা আমাদের বিদ্যালয়টিকে খুব ভালোবাসি এবং এর জন্য গর্ববোধ করি 

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url