পুষ্প আপনার জন্য ফোটে না ভাব সম্প্রসারণ - ৩টি

পুষ্প আপনার জন্য ফোটে না পরের জন্য তোমার হৃদয় কুসুমকে বিকশিত করিও ভাবসম্প্রসারণ - ১

মূলভাব : পরের উপকারে নিজেকে বিলিয়ে দেওয়াতেই জীবনের চরম সার্থকতা। এ জন্য প্রত্যেককে হৃদয় দিয়ে মানবের মঙ্গলে নিবেদিত থাকা উচিত।.

সম্প্রসারিত ভাব : পুষ্পের সৌন্দর্য মানুষকে প্রফুল্ল করে। ফুলের সৌন্দর্য এবং ঘ্রাণ কিছুই তার নিজের কাজে আসে না! ঠিক তেমনি সাধু ও জ্ঞানী ব্যক্তিরা এ পৃথিবীতে জন্মগ্রহণ করে মানুষের জন্য অনেক কিছু করে যান। মানবের জন্য নিজের সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য বিসর্জনের মাধ্যমেই গৌরব অর্জন করা যায়। পুষ্পের সুবাসের ন্যায় তাদের গুণাবলিও মানুষকে সীমাহীন আনন্দ দান করে। 

পুষ্প যেমন তাঁর সৌরভে সকলকে মুগ্ধ ও তৃপ্ত করে তেমনি মহৎ ব্যক্তিগণ এ পৃথিবীতে তাদের সেবা দ্বারা সকলকে মুগ্ধ ও তৃপ্ত রাখে। অর্থাৎ পরের জন্য নিজের স্বার্থ বিলিয়ে দেওয়াতেই জীবনের চরম সার্থকতা। যদিও পুষ্প নিজের সুরভি বিলিয়েই জীবনের অবসান ঘটায় কিন্তু তার উজাড় করা ভালোবাসা মানুষের স্মৃতিতে অম্লান হয়ে থাকে।

মন্তব্য : মহৎ লোকের সংস্পর্শে এসে সাধারণ মানুষও মহৎ ও সুন্দর হয়ে ওঠে। বিশ্ব মানবকে হৃদয় উজাড় করে ভালোবেসে তাদের কল্যাণে নিজেকে বিসর্জন দিয়েই মহৎ মানুষ নিজেকে পরিপূর্ণ মনে করে।

আরও পড়ুন :-  আপনাকে বড় বলে বড় সেই নয় ভাবসম্প্রসারণ - ২টি 

পুষ্প আপনার জন্য ফোটে না পরের জন্য তোমার হৃদয় কুসুমকে বিকশিত করিও ভাবসম্প্রসারণ - ২

মূলভাব : নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত থাকার জন্য মানুষ এ পৃথিবীতে আসেনি। একে অপরের উপকার সাধনের মধ্যেই জীবনের চরম সার্থকতা লুকায়িত।

সম্প্রসারিত ভাব : ফুল কখনো নিজের জন্য ফোটে না। পরের হিত সাধনের জন্যই তার পৃথিবীতে আসা। মানব জীবনকে সৌন্দর্য দান করে মাতানো ঘ্রাণে জীবন ভরিয়ে দেয়ার মধ্যে সে সার্থকতা খুঁজে পায় । মানব জীবনে ফুল অনুকরণীয় উপাদান হতে পারে। মানুষ পৃথিবীতে ভোগ বিলাসের জন্য আসেনি; পরের জীবনে সুখ শান্তি আনয়ন করার মধ্যেই মানব জীবনের চরম ও পরম সার্থকতা।

পৃথিবীতে মহৎ ব্যক্তিগণ পরের কল্যণে জীবন উৎসর্গ করতেও কুণ্ঠাবোধ করে না। তাই তারা পৃথিবীতে সকলের প্রিয় ও পরম পূজনীয়। পক্ষান্তরে স্বার্থপর হীন চরিত্রের মানুষ চায় পৃথিবীটা একা ভোগ করতে, সে চায় সকলকে বঞ্চিত করে বড় হতে, ফলে পৃথিবীতে নানা প্রকার কলহ বিশৃংখলা সৃষ্টি হয় । স্বার্থপর লোক দেশ ও জাতির অভিশাপ- তারা বিশ্বের কলংক ।

মন্তব্য : পরের কল্যাণ সাধনের মধ্যে পরম সুখ । প্রতিটি মানুষ যদি পুষ্পের মতো নিজের জীবনকে পরের কল্যাণে বিকশিত করে তবেই পৃথিবীতে বসবে আনন্দের মেলা।

আরও পড়ুন :প্রাণ থাকলেই প্রাণী হয় কিন্তু মন না থাকলে মানুষ হয় না

পুষ্প আপনার জন্য ফোটে না পরের জন্য তোমার হৃদয় কুসুমকে বিকশিত করিও ভাবসম্প্রসারণ - ৩

মূলভাব : মানুষ যখন স্বার্থপরতার সংকীর্ণ প্রাচীর পেরিয়ে বৃহতের বিশালায়নের মধ্যে উত্তীর্ণ হয়ে সবার আনন্দ-বেদনার মধ্যে নিজেকে বিস্তৃত করে দেয়, তখনই আসে জীবনের স্বার্থকতা, সাধিত হয় জগতের প্রভূত কল্যাণ। জীবনের সার্থকতা পরোপকারে কেবল নিজের জন্য নয় ।

সম্প্রসারিত ভাব : পরোপকার সৃষ্টির ধর্ম। এ পৃথিবীতে নিজের জীবিকা অর্জনের জন্য প্রতিটি জীবকে কাজ করতে হয়। কিন্তু শুধু নিজেকে নিয়ে বিরত থাকাটা মানবজীবনের উদ্দেশ্য নয়। মানুষের নীতি হচ্ছে, নিজে বাঁচবে এবং অন্যকে বাঁচাবে। এখানেই মানুষ ও জীবের মধ্যে প্রভেদ রয়েছে। যারা অন্যের সুখ-দুঃখের কথা না ভেবে নিজের সুখ ও আরামের জন্য কাজ করে, তাদেরকে মানুষ বলা চলে না। 

যাঁরা সত্যিকারের মানুষ তাঁরা পরের সুখ-দুঃখের কথা সবসময় চিন্তা করেন ও পরের মঙ্গলের জন্য জীবন বিসর্জন করেন। তাঁরা মহৎ ও নিঃস্বার্থ জীবনযাপন করেন। সুগন্ধী ফুল কখনো তার নিজের সুবাস নিজে ভোগ করে না। প্রখর সূর্যকিরণকে অগ্রাহ্য করে সে বনে ফোটে ও বাতাসের সাহায্যে তার সুবাসকে চারিদিকে ছড়িয়ে দেয়। তাতে সবাই আনন্দ ও তৃপ্তি পায়। 

এতে তার জীবনের অবসান ঘটে বটে, কিন্তু পরের সেবা করতে পেরে জীবনের চরম ও পরম সার্থকতা লাভ করে। মহৎ লোকেরাও পরের হিত সাধনে রত থাকেন ও তাঁদের মঙ্গলের জন্য জীবন বিসর্জন দেন। পরের দুঃখ দূর করার জন্য তাঁরা তাঁদের জীবন ফুলের মতো বিকশিত করে তোলেন। 

পরের কল্যাণে জীবন উৎসর্গ করার মাঝেই জীবনের পরম ও চরম সার্থকতা। তাই আমাদেরও উচিত পরের কল্যাণে নিজেকে পুষ্পের ন্যায় অকাতরে বিলিয়ে দেয়া। এক কথায়, এ জীবন কেবল নিজের জন্য নয়, অপরের মঙ্গলের জন্য এ জীবনের সকল কর্ম নিবেদন করা। এখানেই জীবনের পূর্ণতা।

মন্তব্য : প্রকৃতি ও মানুষ একে অপরের পরিপূরক। প্রকৃতি তার অকুণ্ঠ ত্যাগ দিয়ে আমাদের জীবনচলার পথকে সুসম রাখার প্রয়াসে সর্বদা নিয়োজিত । মানুষ তার ব্যত্যয় করলে তার সুখও একদিন হুমকির সম্মুখীন হতে বাধ্য। এ অগাধ এবং নির্মম সত্য উপলব্ধি করে আমাদের উচিত পরার্থে এবং পৃথিবীর স্বার্থে পুষ্পের ন্যায় জীবনকে উৎসর্গ করা।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url