পবিত্র মহররম - বাংলা প্রবন্ধ রচনা

উপস্থাপনা ঃ 

মুসলমানদের বিষাদময় কাহিনীর অপর নাম মহররম। রোমাঞ্চকর ঘটনার অপর নাম মহররম। মানব ইতিহাসের ঊষালগ্ন থেকে এ মাসটি বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যময়। ত্যাগ ও মুসলিম ঐতিহ্যে পরিপূর্ণ এ মাস। এ মাস মুসলিম জাহানে জাগরণের অনুপম প্রেরণার মাস ।

মহররমের পরিচয়  

আরবি চান্দ্রমাসের প্রথম মাসের নাম মহররম। মহররম শব্দের অর্থ অবৈধ। মহররম মাসের ১০ তারিখকে আশুরা বলে এ মাসকে সম্মান প্রদর্শন করে । আরবের লোকেরা অন্যায় যুদ্ধ বিগ্রহ ও রক্তপাত থেকে বিরত থাকতো বিধায় এ মাসের নামকরণ করা হয়েছে মহররম।

আরও পড়ুন :- ঈদ উৎসব - বাংলা রচনা | ক্লাস 6, 7, 8, 9, 10

মহররমকে নিয়ে ইতিহাস যা বলে 

মহররম ঐতিহ্যের মাস। মহররম মাস ইতিহাসের বহু ঐতিহাসিক ঘটনার জন্ম দিয়েছে । তাই এ মাস গুরুত্বপূর্ণ মাস। বহু ঐতিহাসিক ঘটনার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ঃ

১. এ মাসের দশ তারিখে আল্লাহ আসমান, জমিন ও লাওহ কলম সৃষ্টি করেছেন ।

২. হযরত আদম (আঃ) এ মাসের দশ তারিখে আল্লাহর মনোনীত খলিফা নির্বাচিত হয়েছিলেন।

৩. এ মাসের দশ তারিখে হযরত আদম (আঃ) এর তওবা কবুল হয় ।

৪. এ মাসের দশ তারিখে হযরত আইয়ুব (আঃ) কঠিন রোগ থেকে মুক্তি পান ।

৫. এ দিনেই হযরত নূহ (আঃ) এর নৌকা ঝড় তুফান থেকে রক্ষা পায় ।

৬. এদিনে হযরত ইউনুস (আঃ) মাছের পেট থেকে রক্ষা পান ।

৭. এদিনে হযরত ইয়াকুব (আঃ) দৃষ্টিশক্তি ফিরে পান ।

৮. এদিনে মুসলিম জাতির পিতা হযরত ইব্রাহিম (আঃ) নমরুদের আগুন থেকে রক্ষা পান ।

৯. এদিনে হযরত ঈসা (আঃ) আসমানের ওঠে যান।

১০. এ মহররম মাসের দশ তারিখেই হযরত মুহাম্মদ (সঃ) এর দৌহিত্র হযরত হুসাইন (রাঃ) সপরিবারে কারবালার প্রান্তরে নির্মমভাবে এজিদের হাতে শহীদ হন ।

আরও পড়ুন :- বাংলা রচনা : ঈদে মিলাদুন্নবী ক্লাস ৬, ৭, ৮, ৯, ১০ 

কারবালার পটভূমি ঃ 

হযরত মুয়াবিয়ার মৃত্যুর পর হযরত মুহাম্মদ (সঃ)-এর নাতী ইমাম হুসাইন (রাঃ) কে খলিফা ঘোষণা করা হলো। মুয়াবিয়ার পুত্র এজিদ তা স্বীকার করতে পারল না, সে নিজেই খলিফা দাবি করে বসল । চারদিকে বিদ্রোহ ধূমায়িত হয়ে ওঠল । এজিদ হোসেনের সাথে বেঈমানী করে মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে তাকে যুদ্ধে আমন্ত্রণ জানাল । 

দিকভ্রান্ত হয়ে হোসেন সপরিবার ফোরাত নদীর তীরে কারবালা প্রান্তরে এসে উপস্থিত হলেন । এখানেই এজিদের সৈন্যগণ হোসেনকে এবং তার পরিবারের সবাইকে পানি অবরোধ করে কাতর করে ফেললেন। অবশেষে বীরের ন্যায় যুদ্ধ করে হোসেন শহীদ হলেন। কারবালার এই নিষ্ঠুর হত্যাকান্ড স্মরণ করে শিয়া সম্প্রদায় অনুষ্ঠান পালন করে ।

মহররমের শিক্ষা ঃ 

মানুষ মহররম মাসের ত্যাগ করতে শিখে। এ মাস মুসলমানের সত্য ও ন্যায়ের শিক্ষা দেয়। এ মাস মাথা উঁচু করে থাকতে শিখায় ।

উপসংহার ঃ 

মুসলমানদের কাছে মহররম মাস পবিত্র মাস। এ মাসের পবিত্রতা রক্ষা করা প্রতিটি মুসলমানদের একান্ত দায়িত্ব ও কর্তব্য। । এ মাসের গুরুত্ব উপলব্ধি করে নজরুল বলেছে- “ত্যাগ চাই মর্সিয়া ক্রন্দন চাহিনা।” মহররম মুসলিম বিশ্বে সত্য পথের প্রেরণা দান করুক এ কামনা সবার ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url