আমার প্রিয় খেলা - ফুটবল রচনা class 2, 3, 4, 5

সূচনা : 

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা হলো ফুটবল। ফুটবল খেলাকে ভালোবাসে না এমন মানুষ খুব কমই রয়েছে। এই ফুটবল খেলাটি আমাদের দেশে প্রচলিত হয়নি। এটি বিদেশিদের খেলা।  বিদেশিদের একমাত্র এই খেলাটি আমাদের বাংলাদেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রচলিত রয়েছে। 

যেসব বিদেশী খেলা আমাদের দেশের মধ্যে প্রচলিত রয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি আনন্দদায়ক এবং জনপ্রিয় খেলা হচ্ছে এটি। প্রাচীনকালে সবার প্রিয় এ খেলাটি প্রচলিত হয় চীন দেশে । সেখান থেকে খেলাটি ছড়িয়ে পড়ে দেশে বিদেশে ।

ফুটবল খেলার নিয়ম : 

অন্যান্য খেলার মতো এ ফুটবল খেলার কতকগুলো নিয়ম কানুন রয়েছে । এই খেলাটি নিয়ন্ত্রণ করার জন্য কতগুলো আন্তর্জাতিক নিয়ম-কানুন রয়েছে। সেসব নিয়ম কানুন মেনে এই খেলা পরিচালনা করা হয়। খেলার সময় প্রত্যেক দলের অধিনায়ক তার নিজের দলের সমতা রক্ষা করে থাকেন। প্রথমে মাঠের কেন্দ্রস্থলে বলটি স্থাপন করা হয় এবং সেখান থেকে খেলা আরম্ভ হয়।  খেলাতে দুটি প্রতিযোগী দল থাকে। 

আরও পড়ুন :- আমাদের দেশ রচনা [৩য়, ৪র্থ, ৫ম শ্রেণি ] 

প্রতি দলে এগারোজন করে দু'পক্ষে মোট বাইশজন খেলোয়াড় থাকে। একেক পক্ষের  এগারোজন খেলোয়াড় হলো- (১) গোলরক্ষক একজন; (২) ব্যাক দু'জন; (৩) হাফ ব্যাক তিনজন; (৪) ফরওয়ার্ড পাঁচ জন। খেলা যিনি পরিচালনা করেন তাকে 'রেফারি' বলে। রেফারিই হলেন খেলার পরিচালক ও বিচারক। এছাড়া তাকে সাহায্য করার জন্য দু'পাশে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকেন দু'জন লাইনম্যান। রেফারিই খেলার জয়-পরাজয় ঘোষণা করেন।

ফুটবল খেলার নির্ধারিত সময়কাল :-

খেলার সময়কাল ৯০ মিনিট।  খেলার মাঝখানে খেলোয়ারদের ১৫মিনিট বিশ্রাম দেওয়া হয়।  বিশ্রামের পর খেলোয়াড়গণ মাঠের পার্শ পরিবর্তন করেন। খেলার সময় যে দল অধিকসংখ্যক গোল করেন তাদেরকে জয়ী ঘোষণা করা হয়। যদি গোল সংখ্যা সমান হয় তাহলে অতিরিক্ত সময় বাড়িয়ে দেওয়া হয়। সে সময়ের মধ্যে যে দল গোল করবে তাকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। যদি সেই সময়ের মধ্যেও গোল করা না হয় তাহলে পেনাল্টি শর্টের মাধ্যমে খেলাটি  নিষ্পত্তি করা হয়।  

ফুটবল খেলার উপকারিতা : 

ফুটবল একটি উত্তম শারীরিক ব্যায়াম। ফুটবল খেলাতে শরীরের প্রত্যেকটি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ এবং পেশিসমূহ সঞ্চালিত হয় বলে এগুলো দৃঢ় হয়। এতে শরীর ও মন দুটোই ভালো থাকে ।

ফুটবল খেলার অপকারিতা : 

উপকারিতার পাশাপাশি এ খেলার কিছু কিছু অপকারিতাও আছে। যেমন— এতে আছে প্রচুর ঝুঁকি; অনেক সময় দুর্ঘটনা ঘটে বলে খেলোয়াড়দের অঙ্গহানি ঘটতে পারে। মারাত্মক আঘাতে মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। অতিরিক্ত এই খেলা খেললে শরীরের অনেক ক্ষতি হতে পারে।  যাদের হৃদযন্ত্র দুর্বল তাদের কোনো মতেও এ খেলায় অংশগ্রহণ করা সমীচীন নয়।

উপসংহার : 

ফুটবল খেলা বেশ ব্যয়সাধ্য। তাছাড়া আমাদের দেশের আবহাওয়ায় ও স্বাস্থ্যের পক্ষে এ খেলা শুধু গ্রীষ্মকালের জন্য উপযোগী। কিন্তু এখন প্রায় সারা বছরই এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url