ঘুমিয়ে আছে শিশুর পিতা সব শিশুরই অন্তরে ভাবসম্প্রসারণ - ৩টি

ঘুমিয়ে আছে শিশুর পিতা সব শিশুরই অন্তরে ভাবসম্প্রসারণ - ১

মূলভাব : প্রতিটি শিশুর অন্তরের মধ্যে তার ভবিষ্যৎ জীবনের অংকুর লুকায়িত থাকে ।

সম্প্রসারিত ভাব : শিশুরাই জাতির ভবিষ্যৎ। আজ যারা শিশু তারা একদিন বড় হবে। বড় হয়ে তারা জাতিকে নেতৃত্ব দেবে। তারা জাতীয় জীবনের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করবে। তারাই হবে ভবিষ্যৎ জাতির কান্ডারী বা পরিচালক । তাদের পরিচালনায় চলবে দেশ ও জাতি। এ উদ্দেশ্য সামনে রেখে প্রতিটি শিশুকে সেভাবে গড়ে তুলতে হবে। তাদের মনের মধ্যে সত্য সুন্দরের বার্তা পৌঁছে দিতে হবে।

তাদেরকে দিতে হবে সঠিক পথের সন্ধান । প্রতিটি শিশুকে সুশিক্ষিত করে গড়ে তোলার উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় আজ আমাদের দেশে বহু শিশু অনাদর ও অবহেলায় অমানবিক পরিশ্রম করে জীবন-যাপন করছে। শিশুদের এ করাল গ্রাস থেকে মুক্ত করতে হবে। তাদেরকে দিতে হবে সত্য সুন্দর পথের সন্ধান । তবেই জাতি হবে স্বয়ং সম্পূর্ণ ।

মন্তব্য : আজকের শিশুই আগামীদিনের জাতির নেতা । তাই প্রতিটি শিশুকে উপযুক্তভাবে গড়ে তোলা আমাদের পবিত্র কর্তব্য ।

আরও পড়ুন :- বন্যেরা বনে সুন্দর শিশুরা মাতৃক্রোড়ে ভাব সম্প্রসারণ : ৩টি

ঘুমিয়ে আছে শিশুর পিতা সব শিশুরই অন্তরে ভাবসম্প্রসারণ - ২

মূলভাব : প্রতিটি শিশুই আগামী দিনের কর্ণধার।

সম্প্রসারিত ভাব : শিশুই ভবিষ্যৎ মানুষ। ছোট শিশু একদিন বড় হয়ে সমাজে নিজ নিজ আসন দখল করবে। তারাই একদিন হবে কবি, সাহিত্যিক, বৈজ্ঞানিক ও দার্শনিক। তারাই একদিন হবে ব্যবসায়ী, শিল্পপতি ও সমাজকর্মী। তারাই একদিন হবে সৈনিক ও বীর সেনাপতি। প্রত্যেক শিশুর অন্তরে তার ভবিষ্যৎ জীবনের সম্ভাবনা সংগোপনে লুকিয়ে থাকে। বড় হলে শিশু কিরূপ চরিত্রের হবে, তা তার শৈশবের কার্যকলাপ ও আচার আচরণে কিছুটা হলেও ধরা পড়ে।

হযরত মুহম্মদ (সা) বাল্যকালেই তাঁর বিপুল ভবিষ্যৎ জীবনের মহান সম্ভাবনার পরিচয় দিয়েছিলেন। অন্যান্য মহাপুরুষের বাল্যজীবন আলোচনা করলেও আমরা এ সত্যটিই দেখতে পাই। তাঁরা পরিণত জীবনে যে আদর্শকে প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন, বাল্যকালে তার প্রতি তাঁদের আসক্তি দেখা গিয়েছে। তাই আমাদের উচিত শিশুদের যথাযথ যত্ন নেয়া, তাদের সুশিক্ষিত করে গড়ে তোলা। তাহলে জাতি, দেশ তথা সমাজ আরো উন্নত হবে।

আরও পড়ুন :- ভাবসম্প্রসারণ : চকচক করলেই সোনা হয় না - ৩টি 

ঘুমিয়ে আছে শিশুর পিতা সব শিশুরই অন্তরে ভাবসম্প্রসারণ - ৩

মূলভাব : আজকের শিশুই আগামীদিনের ভবিষ্যৎ শিল্পী। তাদের মাঝেই জাতির ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব সুপ্ত । 

সম্প্রসারিত ভাব : আজকের দিনের শিশুর ওপরই জাতির ভবিষ্যৎ, আশা-আকাঙ্ক্ষা ও উন্নয়ন নির্ভর করে। শিশুর মধ্যেই জাতির আশা-আকাঙ্ক্ষার বীজ লুকিয়ে আছে। দেশ পরিচালনায় হয়ত তাদেরই গুরুভার গ্রহণ করতে হবে। তার জন্য দরকার শিশুকাল থেকেই উপযুক্ত, আদর্শবান ও ন্যায়নিষ্ঠ নাগরিক হিসেবে গড়ে ওঠা। 

তারা যদি সত্যিকারের মানুষ হয়ে উঠতে পারে তবেই সমাজের মঙ্গল করতে পারবে— অন্যথায় নয়। আজকের শিশুই বড় হয়ে শ্রেষ্ঠ ব্যক্তিত্ব হতে পারে। প্রবাদ আছে- “A child is the father of the nation." কাজেই দেশকে সুন্দর ও সুখী সমৃদ্ধশালীরূপে গড়ে তুলতে শিশুর অঙ্কুরোদগম থেকেই যত্ন নেয়া উচিত। 

অন্যথায় তারা হয়তো উপযুক্ত পরিবেশের অভাবে অঙ্কুরেই বিনষ্ট হবে। অনুকূল পরিবেশে, সঠিক পরিচালনায়, সযত্নে শিশু সুশিক্ষা পেলেই সে আদর্শ নাগরিক হয়ে পরিবার, সমাজ, দেশ ও জাতির জন্য সুনাম বয়ে আনবে। সব শিশুই যেন তাদের সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ ঘটানোর সুযোগ পায় সেদিকে সবারই সজাগ দৃষ্টি রাখা উচিত।

মন্তব্য : আজকের শিশুই আগামীদিনের ভবিষ্যৎ সুনাগরিক। জাতি গঠনে শিশুর উপযুক্ততার বিশেষ প্রয়োজন। এজন্য শিশুদের প্রতি সকলের যত্নশীল হওয়া উচিত।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url