ভাবসম্প্রসারণ : স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল (৩টি)

প্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুগণ, তোমাদের শেখার সুবিধার্থে "স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল" ভাবসম্প্রসারণটি ৩টি বই থেকে সংগ্রহ করে দেয়া হলো।

স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল ভাবসম্প্রসারণ - ১

মূলভাব : স্বাস্থ্য মানবজীবনের একটি অমূল্য সম্পদ। কারণ সুস্থ শরীর মানে সুস্থ মন। সুস্থতার ওপরই মানুষের সমস্ত সুখ-স্বাচ্ছন্দ্য নির্ভর করে।

সম্প্রসারিত ভাব : প্রত্যেক মানুষ সুন্দর, সুখী জীবন প্রত্যাশা করে। তাঁর জন্য দরকার শরীরের সুস্থতা। সর্বপ্রকার সুখের মূলেই রয়েছে সুস্বাস্থ্য। মানুষের শরীরের সাথে মন অনেকাংশে নির্ভর করে। শরীর সুস্থ থাকলে মনও সুস্থ থাকে, মন সুস্থ থাকলে সব কাজে উদ্দীপনা পাওয়া যায়। লেখাপড়া, খেলাধুলা, আমোদ-প্রমোদ সবকিছুর জন্যই শরীরের সুস্থতা দরকার। 

শরীর সুস্থ না থাকলে সবকিছুই বিস্বাদ মনে হয়। স্বাস্থ্যহীন ব্যক্তিকে টাকা-পয়সা, মান- সম্মান কোনো কিছুই সুখ দিতে পারে না। একজন স্বাস্থ্যহীন ব্যক্তি সবসময় নিরানন্দ, হতাশা এবং অন্তর্দ্বন্দ্বে ভোগেন। যার ফলে তার জীবন যাপন দুঃসহনীয় হয়ে পড়ে। কাজেই বলা যায়, স্বাস্থ্যবান গরিব ব্যক্তি স্বাস্থ্যহীন ধনী ব্যক্তির চেয়ে সহস্রগুণ সুখী।

মন্তব্য : শরীরের সুস্থতার নামই স্বাস্থ্য। তাই প্রত্যেকের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন থাকা উচিত।

আরও  পড়ুন :- ভাবসম্প্রসারণ : লোভে পাপ পাপে মৃত্যু (৩টি )

স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল ভাবসম্প্রসারণ - ২

মূলভাব : কোন মানুষ যদি সুখময় জীবন যাপন করতে চায় তাহলে তার প্রথম কাজ হচ্ছে সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হওয়া। সুস্বাস্থ্যের অধিকারী না হলে কোন মানুষ সুখি জীবন যাপন করতে পারে না। 

ভাব-সম্প্রসারণ: স্বাস্থ্য মানব জীবনের এক অমূল্য সম্পদ। মানবজীবন কর্মময়। কর্মের মধ্যেই মানব জীবনের সার্থকতা নিহিত। স্বাস্থ্য ভালো না থাকলে কোনো কাজেই মন বসে না। একজন স্বাস্থ্যহীন লোকের কাছে ধন- দৌলত, টাকা-পয়সা সবই নিরর্থক। সে তার স্বাস্থ্যহীনতার জন্য জীবনে কখনো সুখ ও আনন্দ অনুভব করতে পারে না। শরীর সুস্থ না থাকলে মনও ভালো থাকে না, কাজে মন বসে না, খেলাধুলা করতেও ইচ্ছে করে না। 

এমন কী মজাদার খাবার-দাবার খেতেও মন চায় না। শরীর ও মনের সুস্থতার ওপর নির্ভর করে আগামী দিনের সুখ-সমৃদ্ধি ও সফলতা। রবীন্দ্রনাথ বলেছেন, 'চাই বল, চাই স্বাস্থ্য, আনন্দ উচ্ছল পরমায়ু সুস্থ দেহই সুস্থ মনের নিশ্চয়তা দেয়। তাই স্বাস্থ্য বলতে শারীরিক ও মানসিক উভয় প্রকার স্বাস্থ্যকেই বোঝায়। স্বাস্থ্যহীন মানুষ পরিবার, সমাজও দেশের জন্য ও কোনো ভূমিকা রাখতে পারে না। সে কোনো অনুষ্ঠানে, খেলাধুলায় বা কোনো আমোদ-প্রমোদে অংশগ্রহণ করতে পারে না। 

তার চিন্তাশক্তি, কর্মশক্তি, বিচারশক্তি ও স্মৃতিশক্তি ধীরে ধীরে লোপ পেতে থাকে। ফলে বিরক্তি, অলসতা, কর্মবিমুখতা ধৈর্যহীনতা, দুর্বলতা, ভয়ভীতি ইত্যাদি এসে তাকে ঘিরে ধরে। তার জীবন দুঃখ ও যন্ত্রণায় পরিপূর্ণ থাকে। ফলে সে পরিবার, সমাজ ও জাতির বোঝাস্বরূপ। আর এ কারণেই স্বাস্থ্যকে সম্পদ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়।

আরও  পড়ুন :- ভাবসম্প্রসারণ : যেখানে দেখিবে ছাই উড়াইয়া দেখিবে তাই  (৩টি)

স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল ভাবসম্প্রসারণ - 

মূলভাব : সুখময় জীবন যাপনের জন্য সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হওয়ার গুরুত্ব অপরিসীম। 

ভাব-সম্প্রসারণ : স্বাস্থ্য মানুষের অমূল্য সম্পদ। এ পৃথিবীতে প্রতিটি মানুষই অর্থ ও ধন-সম্পদ অর্জনের মাধ্যমে সুখী হতে চায়। কিন্তু স্বাস্থ্য ভালো না থাকলে শুধু অর্থ ও ধন-সম্পদ মানুষকে সুখ দিতে পারে না। কারণ, মানুষের সর্বপ্রকার সুখের মূলে রয়েছে স্বাস্থ্য। স্বাস্থ্যহীন ব্যক্তির মনে শান্তি থাকে না। তার ধন-সম্পদ, প্রভাব প্রতিপত্তি সবই তার কাছে অর্থহীন মনে হয়। সেজন্যই বলা হয়, স্বাস্থ্যবান গরিব ব্যক্তি স্বাস্থ্যহীন ধনী ব্যক্তির চেয়ে অনেক বেশি সুখী। কাজেই, ভালো স্বাস্থ্যের জন্য আমাদেরও উচিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা ।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url