ভাবসম্প্রসারণ : যেখানে দেখিবে ছাই উড়াইয়া দেখিবে তাই (৩টি)

প্রিয় শিক্ষার্থী বন্ধুগণ, তোমাদের শেখার সুবিধার্থে "যেখানে দেখিবে ছাই উড়াইয়া দেখ তাই পাইলেও পাইতে পার অমূল্য রতন" ভাবসম্প্রসারণ টি  ৩টি বই থেকে সংগ্রহ করে দেয়া হলো। তোমাদের কাছে যেটা সবচেয়ে সহজ মনে হয় সেটাই শিখে নিতে পারো। 

যেখানে দেখিবে ছাই উড়াইয়া দেখিবে তাই ভাবসম্প্রসারণ - 

মূলভাব : এ পৃথিবীর কোনো বস্তুকেই তুচ্ছ মনে করা উচিত নয়। অতি তুচ্ছ বস্তুর মধ্যেও লুকিয়ে থাকে বিস্ময়কর সম্ভাবনা।

সম্প্রসারিত ভাব : পরম করুণাময় আল্লাহ্তায়ালা এ বিশ্বব্রহ্মাণ্ডকে নানা জিনিস দিয়ে সুশোভিত করেছেন। অনেক জিনিস আকারে বড় আবার অনেক জিনিস আকারে খুবই ছোট। অনেক জিনিস মূল্যবান, আবার অনেক জিনিস আছে যার মূল্য কম বা মূল্যহীন বলে তুচ্ছ জ্ঞান করা হয়। মানুষ সাধারণত বড় বড় বা মূল্যবান জিনিসের প্রতি মোহাবিষ্ট হয়ে পড়ে এবং ছোট ও নগণ্য জিনিসকে তুচ্ছ জ্ঞান করে অবহেলার বস্তুতে পরিণত করে। 

তাই ঐ সব নগণ্য বা তুচ্ছ জিনিস চিরকাল অবহেলায় ও অনাদরে থেকে যায়। অনেক ক্ষুদ্র ও তুচ্ছ বস্তুর মধ্যেও অনেক মূল্যবান জিনিস লুকিয়ে থাকতে পারে। বাইরের অবয়ব বা আকৃতি প্রকৃতি দেখে কোনো জিনিসের সঠিক মান মূল্যায়ন করা সম্ভব নয়। সঠিকভাবে অনুসন্ধান ও অনুধাবন করতে পারলে অনেক তুচ্ছ ও নগণ্য জিনিসের মধ্যেও মহামূল্যবান রত্নের সন্ধান পাওয়া যেতে পারে।

মন্তব্য : পৃথিবীর কোনো ক্ষুদ্র বস্তুকেই অবজ্ঞা বা অবহেলা করা উচিত নয়। কারণ, ক্ষুদ্র জিনিসের মধ্যেও মহামূল্যবান সম্পদ লুকিয়ে থাকতে পারে।

আরও পড়ুন : কাঁটা হেরি ক্ষান্ত কেন কমল তুলিতে : ভাব সম্প্রসারণ (৩টি )

যেখানে দেখিবে ছাই উড়াইয়া দেখিবে তাই ভাবসম্প্রসারণ - ২

মূলভাব : কোনো কিছুকেই তুচ্ছ বলে অবহেলা করতে নেই। তুচ্ছ বস্তুর মধ্যেও মহামূল্যবান সম্পদ লুকিয়ে থাকতে পারে। 

সম্প্রসারিত ভাব : পৃথিবীতে কোনো জিনিসকেই তুচ্ছ বলে অবহেলা ও অবজ্ঞা করা উচিত নয়। বাইরের আকৃতি প্রকৃতি দেখে কখনো কোনো জিনিসের প্রকৃত ও সঠিক মূল্য নির্ধারণ করা যায় না। রাস্তার পাশে পড়ে থাকা এক টুকরো কাগজের মধ্যে হয়তো এমন উপদেশ থাকতে পারে, যার দ্বারা তোমার জীবন স্বর্ণোজ্জ্বল হয়ে উঠতে পারে। 

গ্রামবাসী দীনহীন সাধারণ মানুষের মধ্যেও হয়ত বা অসাধারণ মহত্ত্ব ও প্রতিভার পরিচয় পাওয়া যেতে পারে। গ্রামবাসী কৃষকদের অনেক সময় আমরা দরিদ্র, মূর্খ ও চাষা বলে অবজ্ঞা করি, কিন্তু তাদের ঘরেই হয়তো প্রতিভাবান সন্তানের আবির্ভাব ঘটে। সামান্য ঝিনুকের মধ্যেও মুক্তা লুকিয়ে থাকে। 

প্রকৃতপক্ষে প্রতিভাধর ব্যক্তিও মহামূল্যবান বস্তুর পরিচয় সাধারণত প্রচ্ছন্নই থাকে। তুচ্ছ জিনিস এবং অখ্যাত মানুষও অনেক সময় অসাধারণ মূল্য ও সুখ্যাতির অধিকারী হতে পারে। তাই হীন ও তুচ্ছ বলে কাউকে অবহেলা করা উচিত নয়। এক কথায় আমাদের মনে রাখতে হবে যে, পৃথিবীর কোনো জিনিসই তুচ্ছ নয়। সবকিছুই মূল্যবান এবং প্রয়োজনীয়।

আরও পড়ুন : সংসার সাগরে দুঃখ তরঙ্গের খেলা : ভাব সম্প্রসারণ - ২ টি 

যেখানে দেখিবে ছাই উড়াইয়া দেখিবে তাই ভাবসম্প্রসারণ - ৩

ভাব-সম্প্রসারণ: এ-পৃথিবীতে কোনো জিনিসই তুচ্ছ নয়। কোনো বস্তুকেই তুচ্ছ ভাবা উচিত নয়। বাইরের আকৃতি ও প্রকৃতি দেখে সকল জিনিসের যথাযথ মূল্যায়ন সম্ভব নয়। বাইরের দৃষ্টি দিয়ে আমরা অনেক জিনিস সম্পর্কে ভুল ধারণা গ্রহণ করি, প্রকৃত গুণের সন্ধান নিই না। আমরা বাইরের চাকচিক্য ও চমক দেখেই বেশি আকৃষ্ট হই। কোনো জিনিসের মর্মস্থলে কষ্ট করে প্রবেশ করতে চাই না। 

আবার শুধু বাইরের দিকটাই বড় করে দেখি। গোবরের মধ্যেই পদ্মফুল ফোটে, সমুদ্রের গভীর তলদেশের মণিমাণিক্য থাকে। পৃথিবীতে যাঁরা জ্ঞানের সন্ধানী, কৌতূহলী এবং নিরহংকার ব্যক্তি তাঁরাই প্রকৃত জ্ঞানের খোঁজ পান। প্রতিভাধর ব্যক্তি ও মহৎ পুরুষের পরিচয় অনেক সময় প্রচ্ছন্ন থাকে বলে আমরা তাঁদের চিনতে পারি না । সুতরাং বাইরের রূপ বা আবরণ দেখে কোনো কিছুকে তুচ্ছ ভাবা সমীচীন নয়।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

শিক্ষাগার ওয়েবসাইটের নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url